গাড়ি বিক্রয় চুক্তিনামা [ Car Sales Deed, Agreement ]

গাড়ি বিক্রয় চুক্তিনামা : আপনি যখন নিজেদের গাড়ীটি অন্যের কাছে বিক্রি করতে চাইবেন বা কারো কাছ থেকে কোন গাড়ী কিনতে চাইবেন, তখন গাড়ি ক্রয়-বিক্রয় প্রক্রিয়াটি নির্ঝঞ্ঝাট করার জন্য একটি চুক্তিপত্র করা আবশ্যক। এছাড়া বিক্রয়ের পরে বিআরটিএ তে সরকারি ভাবে মালিকানা পরিবর্তন করতে গেলেও আপনাকে চুক্তিনামা দেখাতে হবে।

গাড়ি বিক্রয় চুক্তিনামা [ Car Sales Deed, Agreement ]

আজ আমরা প্রথমে জেনে নেবো গাড়ি ক্রয়/বিক্রয়ের চুক্তিনামা কিভাবে করতে হবে। তারপরে একটি চুক্তিনামার স্যাম্পল দেয়া হবে। উক্ত স্যাম্পলটি আপনাকে প্রথমে ডাউনলোড করে মাইক্রোসফট ওয়ার্ড এ নিতে হবে। ওয়ার্ড ডকুমেন্টটি লিগ্যাল সাইজ সিলেক্ট করতে হবে। এরপর পাতা নম্বর যুক্ত করতে হবে। এরপর চুক্তির তথ্যগুলো আপনার ও ক্রেতা/বিক্রেতার তথ্য দিয়ে পরিবর্তন করতে হবে। এরপর একটি প্রিন্ট দিয়ে প্রুফ দেখে নিন। সঠিক থাকলে স্ট্যাম্পে প্রিন্ট দিন।

অনেকেই সরাসরি চুক্তিনামা ডাউনলোড করে এডিট করে প্রিন্ট দিয়ে দেন। সেক্ষেত্রে অনেক সময় বোঝার ভুলের কারণে তথ্যগত ভুল হতে পারে। তাই আমাদের অনুরোধ, আপনি ক্রয়/বিক্রয় চুক্তিনামা তৈরির আগে গাড়ি বিক্রয় চুক্তিনামা লেখার নিয়ম একবার পড়ে নিন।

গাড়ি বিক্রয় চুক্তিনামা লেখার নিয়ম:

প্রথমেই চুক্তিপত্রটির উপরের “গাড়ী বিক্রয়ের চুক্তিপত্র” কথাটি লিখতে হবে। উপরে স্ট্যাম্পে মার্জিনের জায়গা খালি রাখুন।

তারপর লিখতে হবে “প্রথম পক্ষঃ” বা বিক্রিতা। প্রথম পক্ষ এর লাইন থেকে গাড়ীটি যে বিক্রি করবে তার “নাম, পিতার নাম, ঠিকানা, পেশা, ভোটার আইডি নাম্বার ও মোবাইল নাম্বার দিতে হবে”।

এরপর নিচের লাইনে “২য় পক্ষ/গাড়ীর ক্রেতা” কথাটি লিখতে হবে।

এখন দ্বিতীয় পক্ষঃ লিখতে হবে পরের লাইনে, তারপর এই লাইনে যে গাড়ীটি কিনবে তার “নাম, পিতার নাম, ঠিকানা, পেশা, ভোটার আইডি নাম্বার ও মোবাইল নাম্বার দিতে হবে”। এরপর নিচের লাইনে “দ্বিতীয় পক্ষ/গাড়ীর ক্রেতা” কথাটি লিখতে হবে।

তারপর নিচের লাইনে লিখতে হবে “পরম করুনাময় আল্লাহ তায়ালার নামে আরম্ভ করিলাম। যেহেতু আমি প্রথম পক্ষ গাড়ীর মুল মালিক বা বিক্রেতা আমার নিজ নামে নগদে ক্রয়কৃত গাড়ী খানা যাহার বিবরনঃ

রেজিঃ নং- …..………….. [ সরকারের পক্ষে বিআরটি দেয়া রেজিস্ট্রেশন নম্বর ] মডেল- ………….., মডেল সাল- …………, কোম্পানী- ………….., কালার- …………….. । চেসিচ নং-…………., ইঞ্জিন নং-……………..।”

লেখা গুলোর ডট ডট গুলোতে গাড়ী তথ্য গুলো দিয়ে দিতে হবে।

তারপর পেইজের নিচে “চলমান পাতা ০২” লিখতে হবে, এটা লেখার কারণ হলো পরে আরো পাতা আছে, মানে পরের পাতাটি ০২নং পাতা। এর পর আরেকটি পেইজ শুরু হবে, সেখানে প্রথমেই উপরে “পাতা নং-০২” লিখতে হবে।

এর পরের লাইনে লিখতে হবে- “অত্র গাড়ী খানা বিক্রয় করার প্রস্তাব করিলে দ্বিতীয় পক্ষ নিম্ন বর্ণিত শর্ত সাপেক্ষে ক্রয় করিতে উচ্ছুক হইলে আমরা উভয় পক্ষ আলাপ আলোচনার মাধ্যমে গাড়ীর বর্তমান বাজার দর নির্ধারন করে বিক্রয়ের সিদ্ধান্ত নেই।” এই কথাটি সবার জন্যই হয়ে থাকে এই কথাটি পরিবর্তন করার প্রয়োজন হয় না।

পরের লাইনে ‘শর্তাবলী’ লেখাটি লিখতে হবে। মানে এরপর থেকে নিচে নিচে চুক্তিপত্রের কি কি শর্তাবলী আছে সেগুলোকে উল্লেখ করতে হবে।

১। গাড়ীর বর্তমান বাজার দর অনুযায়ী, গাড়ীর মোট মুল্য -……………………/- (…………………..) টাকা মাত্র।

২। দ্বিতীয় পক্ষ ক্রেতা উক্ত গাড়ীর ক্রয় বাবদ নগদ -……………………/- (…………………..) টাকা পরিশোধ করিয়া গাড়ীটি বুঝিয়া নিলেন।

৩। অদ্য ……………….. তারিখ হইতে গাড়ীটির সাথে সম্পর্কিত সমস্ত দায় দায়িত্ব ক্রেতা বহন করিবেন।

৪। নাম পরিবর্তনের সময় বাকী -……………………/- (…………………..) টাকা দ্বিতীয়পক্ষ প্রথমপক্ষকে দিবেন। প্রথম পক্ষ দ্বিতীয় পক্ষকে নাম পরিবর্তন করে দিতে বাধ্য থাকিবে। প্রথম পক্ষ যদি ব্যর্থ হয় সমস্ত টাকা দিতে বাধ্য থাকিবে এবং দ্বিতীয় পক্ষ প্রথম পক্ষকে গাড়ীটি ফেরত দিতে বাধ্য থাকিবে।

উপরের এই প্রধান ৪টি পয়েন্ট উল্লেখ করে গ্যাপ গুলো পূরন করে দিতে হবে এবং পেইজের নিচে “চলমান পাতা-০৩” দিয়ে দিতে হবে।

এখন “পাতা নং-০৩” দিয়ে আরেকটি পেইজ শুরু করতে হবে।

এরপর লিখতে হবে- “এতদ্বার্থে আমরা উভয় পক্ষ অত্র দলিল পড়িয়া ও বুঝিয়া, সুস্থ্য মস্তিস্কে স্বাক্ষীগনের সম্মুখে নিজ নিজ নামে সহি ও স্বাক্ষর করিলাম। ইতি-

তারিখঃ …………………….

স্বাক্ষীগনের স্বাক্ষরঃ

১। প্রথম পক্ষের স্বাক্ষর

২।

দ্বিতীয় পক্ষের স্বাক্ষর

৩।”

উপরের এই লেখাগুলো লেখার পর ১০০ টাকার তিনটি স্ট্যাম্প কিনুন। স্ট্যাম্প পেপার ক্রেতার নামে কিনতে হবে। সেই পেপারে তিনটি পেইজ প্রিন্ট দিতে হবে। আগেই বলেছি একবার ড্রাফট প্রিন্ট করে নিন।

পেইজের মার্জিনে পেইজ সেটাপে উপরে ৪.৫ ইঞ্চি জায়গা খালি রাখতে হবে এবং নিচের দিকে ১.৫ ইঞ্চি জায়গা খালি রাখতে হবে ও দুই সাইটে ১ ইঞ্চি ১ ইঞ্চি জায়গা খালি রাখলেই হবে।

আরেকটি কথা হলো এই চুক্তিপত্রটি গাড়ী চুক্তিপত্র (Car Deed) দেখানো হল, কিন্তু আপনি যদি মোটর সাইকেল এর চুক্তিপত্র করতে চান তাহলে গাড়ীর জায়গায় মোটর সাইকেল লাগালেই হয়ে যাবে এবং মোটর সাইকেল এর তথ্য গুলো দিলেই হবে, বাকি সব ঠিক থাকবে।

আশা করি যারা গাড়ীর ডিড (চুক্তিপত্র) করতে চান এই আর্টিকেল এর মাধ্যমে জানতে ও শিখতে পারলেন। আশা করি ব্লগটি ভাল লেগেছে যদি ভাল লেগে থাকে তাহলে শেয়ার করতে পারেন ও কমেন্ট করে জানাতে পারেন। ধন্যবাদ।

গাড়ি বিক্রয় চুক্তিনামা বা গাড়ি বিক্রয় চুক্তিপত্রের নমুনা:

গাড়ী বিক্রয়ের চুক্তিপত্র

প্রথম পক্ষ ঃ

-প্রথম পক্ষ/গাড়ীর মালিক বা বিক্রেতা।

দ্বিতীয় পক্ষ ঃ

-দ্বিতীয় পক্ষ/গাড়ী ক্রেতা।

পরম করুনাময় আল্লাহ তায়ালার নামে আরম্ভ করিলাম। যেহেতু আমি প্রথম পক্ষ গাড়ীর মুল মালিক বা বিক্রেতা আমার নিজ নামে নগদে ক্রয়কৃত গাড়ী খানা যাহার বিবরন ঃ রেজিঃ নং- …………………….., মডেল- ………….., মডেল সাল- …………, কোম্পানী- ………….., কালার- ……………… । চেসিচ নং-……………………….., ইঞ্জিন নং-……………………..।
চলমান পাতা-০২

পাতা নং-০২

অত্র গাড়ী খানা বিক্রয় করার প্রস্তাব করিলে দ্বিতীয় পক্ষ নিম্ন বর্ণিত শর্ত সাপেক্ষে ক্রয় করিতে উচ্ছুক হইলে আমরা উভয় পক্ষ আলাপ আলোচনার মাধ্যমে গাড়ীর বর্তমান বাজার দর নির্ধারন করে বিক্রয়ের সিদ্ধান্ত নেই।

শর্তাবলী

১। গাড়ীর বর্তমান বাজার দর অনুযায়ী, গাড়ীর মোট মুল্য -……………………/- (…………………..) টাকা মাত্র।

২। দ্বিতীয় পক্ষ ক্রেতা উক্ত গাড়ীর ক্রয় বাবদ নগদ -……………………/- (…………………..) টাকা পরিশোধ করিয়া গাড়ীটি বুঝিয়া নিলেন।

৩। অদ্য ……………….. তারিখ হইতে গাড়ীটির সাথে সম্পর্কিত সমস্ত দায় দায়িত্ব ক্রেতা বহন করিবেন।

৪। নাম পরিবর্তনের সময় বাকী -……………………/- (…………………..)টাকা দ্বিতীয়পক্ষ প্রথমপক্ষকে দিবেন। প্রথম পক্ষ দ্বিতীয় পক্ষকে নাম পরিবর্তন করে দিতে বাধ্য থাকিবে। প্রথম পক্ষ যদি ব্যর্থ হয় সমস্ত টাকা দিতে বাধ্য থাকিবে এবং দ্বিতীয় পক্ষ প্রথম পক্ষকে গাড়ীটি ফেরত দিতে বাধ্য থাকিবে।

চলমান পাতা-০৩

পাতা নং-০৩

এতদ্বার্থে আমরা উভয় পক্ষ অত্র দলিল পড়িয়া ও বুঝিয়া, সুস্থ্য মস্তিস্কে স্বাক্ষীগনের সম্মুখে নিজ নিজ নামে সহি ও স্বাক্ষর করিলাম। ইতি-

তারিখ ঃ …………………….

স্বাক্ষীগনের স্বাক্ষর

১। প্রথম পক্ষের স্বাক্ষর

 

২।
দ্বিতীয় পক্ষের স্বাক্ষর

৩।

 

চুক্তি ডাউনলোড:

“গাড়ি বিক্রয় চুক্তিনামা [ Car Sales Deed, Agreement ]”-এ 1-টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন